ইস্তাম্বুল বিমানবন্দরে আত্মঘাতী হামলা: নিহত ৪১, আহত ২৩৯

তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহরের প্রধান আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে টার্মিনাল ও প্রবেশপথে দুটি আত্মাঘাতী বোমা হামলা ও গুলিতে ৪১ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া, ২৩৯ জন আহত হয়েছেন, যাদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

তুরস্কের নিরাপত্তা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, মঙ্গলবার রাতে তিন বন্দুকধারী ইস্তাম্বুল আতাতুর্ক বিমানবন্দরের প্রধান ফটকের কাছে গুলিবর্ষণ করতে থাকে। এ সময় সেখানে থাকা ব্যক্তিরা নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে পালানোর চেষ্টা করেন। পরে পুলিশ বন্দুকধারীদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে তারা আত্মঘাতী বোমা হামলা চালায়। হামলার পরপরই নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা পুরো বিমানবন্দর ঘিরে ফেলে এবং আহতদের হাসপাতালে নেয়া হয়।

ইস্তাম্বুলের গভর্নর ভাসিপ শাহীন তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা টিআরটিকে জানান, প্রাথমিক তথ্যের ভিত্তিতে ধারণা করা হচ্ছে যে, মঙ্গলবার রাতের দুটি হামলায় তিনজন সন্ত্রাসী অংশ নিয়েছিল।

তুরস্কের এক সরকারি কর্মকর্তা বলেন, হামলাকারীরা বিমানবন্দরের অ্যারাইভাল হলের প্রবেশমুখের একটি চেক পয়েন্টে পৌঁছালে তাদের আটকাতে পুলিশ গুলি চালিয়েছিল। এ সময় দুই হামলাকারী নিজেদেরকে উড়িয়ে দেয়।

বিচারমন্ত্রী বেকির বোজদাগ পার্লামেন্টে বলেন, “আমার কাছে আসা তথ্য অনুযায়ী, আতাতুর্ক বিমানবন্দরের আন্তর্জাতিক টার্মিনালে এক সন্ত্রাসী প্রথমে কালাশনিকভ দিয়ে গুলিবর্ষণ করে এবং তারপর বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নিজেকে উড়িয়ে দেয়।”

একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, “দ্বিতীয় বোমা হামলাটি ঘটেছে বিমানবন্দরে প্রবেশ পথ ‘বি’-তে। এসময় আমার চারজন বন্ধু নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হন।”

টার্কিশ এয়ারলাইন্সের এক কর্মকর্তা জানান, “হামলার পর আতাতুর্ক বিমানবন্দর থেকে নির্ধারিত ফ্লাইটগুলো বাতিল করে যাত্রীদের হোটেলে ফেরত পাঠানো হয়। এর আগে ওই বিমানবন্দরের কিছু ফ্লাইট অন্য পথে সরিয়ে নেয়া হয়।”

ঘটনাস্থল থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা ছবিতে মেঝেতে এবং একটি টার্মিনাল ভবনের বাইরে আহতদের পড়ে থাকতে দেখা গেছে। টেলিভিশন ফুটেজে ঘটনাস্থলের দিকে অ্যাম্বুলেন্স ছুটে যেতে দেখা যায়।

এদিকে, হামলার পর পরই তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান দেশটির প্রধানমন্ত্রী বিন আলি ইলদিরিম, নিরাপত্তা ও সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গে আঙ্কারায় বৈঠক করেছেন। তিনি এ হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেছেন, সন্ত্রাসীরা নিরীহ মানুষ হত্যার মাধ্যমে আবারো তাদের ‘কালো চেহারা’ উন্মোচন করেছে।

তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনআলি ইয়ালদিরিম বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, মধ্যপ্রাচ্যের জঙ্গি সংগঠন দায়েশ এ হামলা চালিয়েছে।

চলতি বছর তুরস্কে বেশ কয়েক দফায় বোমা হামলা হয়েছে। এরমধ্যে ইস্তাম্বুলের পর্যটন এলাকায় দুই দফা আত্মঘাতী হামলা হয়, যার জন্য দায়েশকে দায়ী করা হয়। -পার্সটুডে

You Might Also Like