ইসলামি ব্যাংকিংকে ফ্রড বললেন অর্থমন্ত্রী

ইসলামি ব্যাংকিং পদ্ধতিকে ‘ফ্রড’ (প্রতারণামূলক) ব্যাংকিং বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। শুরু থেকেই তিনি এই অভিযোগ করে আসছিলেন বলেও দাবি করেন তিনি।

রবিবার জাতীয় সংসদে সরকার দলীয় সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান মোল্লার এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ইসলামি ব্যাংকিং বন্ধ করার সুযোগ নেই, এটা বন্ধ করতে হলে মুসলিম উম্মাহকেই উদ্যোগ নিতে হবে।

তিনি বলেন, ‘দুর্ভাগ্য যে, ইসলামিক ব্যাংকিং তত্ত্ব সারা দুনিয়াতেই গৃহীত। আইএমএফ পর্যন্ত তাদের অনুমোদন দিয়েছে। সুতরাং এটাকে বন্ধ করার কোনো সুযোগ এখানে নেই। এটাকে বন্ধ করার সুযোগ মুসলিম উম্মার ওপর। মুসলিম উম্মাহ যখন রেশনালিস্ট হবে, যখন বুঝতে পারবে ইসলামের নামে একটি জঘন্য প্রথা চালু করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘ইসলামে রিবা নিষিদ্ধ। রিবা এবং বর্তমান সুদ এক জিনিস নয়। রিবার মধ্যে কোনো ধরনের মানবিক চিন্তা ধারা নেই। কিন্তু সুদ মানবিক চিন্তা ধারার ওপর নির্ভর করে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। সুদ হল কস্ট অব ফান্ড এবং কস্ট অব অ্যাডমিনিস্ট্রেশন। কিন্তু রিবাতে সেটা ছিল না। যারা ধর্ম নিয়ে কথা বলেন, তারা সুদ ও রিবাকে এক করে ফেলেন। এটা একান্তই ভুল। এই ভুলের ওপর ভিত্তি করেই ইসলামিক ব্যাংকিং হয়েছে। এখন আমার কিছু করার নেই।’

অপর সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, কৃষকদের মধ্যে সুদমুক্ত ঋণ দেওয়ার কোনো পরিকল্পনা সরকারের নেই, তা কোনোকালেই সম্ভব হবে না। কেননা আমরা বাজার থেকে অর্থ সংগ্রহ করে ঋণ বিতরণ করি। যার কাছ থেকে আমরা টাকা নেই তাদেরকেও একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ সুদ আমাদের দিতে হয়। তাই সুদমুক্ত ঋণ দেওয়া কোনোভাবেই সম্ভব হবে না।

You Might Also Like