ইসরাইল ফিলিস্তিনে ব্যাপক হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে : আরব লীগের নিন্দা

ইহুদিবাদী ইসরাইল গাজা উপত্যকায় স্থল ও বিমান হামলার ব্যাপক প্রস্তুতি নিচ্ছে। এ কারণে এ অঞ্চলে ফের ইসরাইলের যুদ্ধকামী তৎপরতার ব্যাপারে উদ্বেগ সৃষ্টি হয়েছে। আরবের অনেক বিশ্লেষক ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে ইসরাইলি আগ্রাসন মোকাবেলায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার জন্য জেনেভা কনভেনশনে স্বাক্ষরকারী দেশগুলো ও আন্তর্জাতিক সমাজের প্রতি আহবান জানিয়েছেন। তারা ইসরাইলকে যুদ্ধাপরাধী হিসেবে অভিহিত করেছেন।

আরব লীগও গাজা উপত্যকা ও জর্দান নদীর পশ্চিম তীরে ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে ইসরাইলের আগ্রাসী কর্মকাণ্ডের বিষয়টি গভীর উদ্বেগের সঙ্গে পর্যবেক্ষণ করছে। কারণ ইসরাইল নজিরবিহীনভাবে ফিলিস্তিনিদের ঘরবাড়ি ও ক্ষেতখামারে হামলা চালানোর পাশাপাশি জনগণ ও সংসদ সদস্যদের গ্রেফতার করছে। আরব লীগ বলেছে, ইসরাইলি আগ্রাসন থেকে বোঝা যায়, তারা ফিলিস্তিনে শান্তি প্রতিষ্ঠা ও জাতীয় ঐকমত্যের সরকার গঠনে মোটেও সন্তুষ্ট নয়।

ইসরাইল মঙ্গলবার সকাল থেকে গাজা উপত্যকায় ব্যাপক বিমান হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে এবং গতকাল গাজার বিভিন্ন স্থানে অন্তত ২৫বার বিমান হামলা চালিয়েছে। এর আগে ইসরাইলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিবারম্যান বলেছিলেন, খুব শিগগিরি গাজা উপত্যকায় বিমান হামলা শুরু করা হবে। এরপরই তিনজন ইসরাইলির মৃতদেহ খুঁজে পাওয়ার নাটক সাজায় তারা এবং এ ব্যাপারে কোনো তদন্ত না করেই গাজায় ব্যাপক হামলার প্রস্তুতির কথা ঘোষণা করে ইসরাইল।

ইসরাইলি কর্মকর্তারা ইহুদি উপশহরে তাদের তিনজন ইহুদির নিখোঁজ হওয়া ও এরপর তাদের নিহত হওয়ার কথা জানানোর পর এ পর্যন্ত ৫৮৯জন ফিলিস্তিনিকে ধরে নিয়ে গেছে ইসরাইলী সেনারা। আটককৃতদের মধ্যে সাবেক ১০জন মন্ত্রীসহ ইসরাইলের জেলখানা থেকে সদ্য মুক্তিপ্রাপ্ত ৫৮ জন ফিলিস্তিনিও রয়েছে। ইসরাইলের সাম্প্রতিক হামলার ফলে গাজার বহু মানুষ হতাহত হয়েছে।

ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু তিনজন ইহুদির মৃতদেহ খুঁজে পাওয়ার কথা জানিয়ে বলেছেন, হামাসকে এর জন্য মূল্য দিতে হবে। কিন্তু ফিলিস্তিনের রাজনৈতিক দলগুলো তিনজন ইহুদির নিখোঁজ হওয়ার ব্যাপারে তাদের হাত থাকার কথা অস্বীকার করেছে। গাজায় হামাসের মুখপাত্র ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রীর এ দাবিকে ওই অঞ্চলে নতুন করে হামলা চালানোর জন্য ইসরাইলের সাজানো নাটক বলে অভিহিত করেছে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, আসল কথা হচ্ছে, ফিলিস্তিনের হামাস ও ফাতাহ ঐকমত্যের সরকার গঠন করায় ইসরাইল খুবই চিন্তিত হয়ে পড়েছে। এ কারণে দখলদার ইসরাইল এ অঞ্চলে বিভিন্ন সন্ত্রাসী গ্রুপ তৈরি করে ইরাক ও সিরিয়াকে ক্ষতি করার পাশাপাশি ফিলিস্তিনের জাতীয় ঐকমত্যের সরকারকেও ক্ষতিগ্রস্ত করার চেষ্টা করছে।

এ অবস্থায় আরব লীগ ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে ইসরাইলের সাম্প্রতিক আগ্রাসন ও ষড়যন্ত্রের নিন্দা জানিয়েছে। আরব লীগ বলেছে, ইসরাইলের এ আগ্রাসন চতুর্থ জেনেভা কনভেনশনের লঙ্ঘন।

You Might Also Like