ইসরাইলি সেনাদের গুলিতে ফিলিস্তিনি কিশোর শহীদ

অধিকৃত আল-কুদস বা জেরুজালেমে ইহুদিবাদী ইসরাইলি বাহিনীর গুলিতে আরেক ফিলিস্তিনি শহীদ হয়েছেন।

গতকাল (রোববার) বিকেলে ২১ বছর বয়সি ওমর ইয়াসের এসকাফি তার গাড়ি থেকে বের হওয়ার আগেই ইসরাইলি সেনারা তার ওপর সরাসরি গুলি চালায়। একদল অবৈধ ইসরাইলি বসতি স্থাপানকারীকে গাড়ি চাপা দেয়ার চেষ্টা করার পাশাপাশি এদের মধ্যে তিনজনকে ছুরিকাঘাত করার অভিযোগে ইসরাইলি সেনারা তাকে গুলি করে বলে আরবি ভাষার ‘সাফা’ বার্তা সংস্থা জানিয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, আহত ওমর পরে মারা যান।

নাবলুস শহরের ১৩ কিলোমিটার পশ্চিমে অবস্থিত পশ্চিম তীরের উত্তর অংশের কাফর কাদুম এলাকায় ইসরাইলি বাহিনী ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের ওপর হামলা চালালে ১৬ বছর বয়সি আকেল রামজি আহত হওয়ার একদিন পর বর্বর ইসরাইলি সেনারা আরেক ফিলিস্তিনি যুবককে হত্যা করল।

অধিকৃত ফিলিস্তিনে তেল আবিব সরকারের আরো অবৈধ বসতি নির্মাণের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনিরা বিক্ষোভ করলে ইসরাইলি বাহিনী তাদের ওপর হামলা চালায়। অধিকৃত পশ্চিম তীরের বিভিন্ন শহরে ইসরাইলি বাহিনী এবং ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের মধ্যে প্রায়ই সংঘর্ষ হচ্ছে।

গত আগস্ট মাসের শেষদিকে ইহুদিবাদী সেনারা আল-আকসা মসজিদ চত্বরে ফিলিস্তিনি মুসল্লিদের নামাজ পড়তে বাধা দেয়। এরপর থেকে জর্দান নদীর পশ্চিম তীরে ইসরাইল বিরোধী কুদস-ইন্দিফাদা বা কুদস-গণজাগরণ শুরু হয়।

অধিকৃত ফিলিস্তিনি ভূখন্ডে অবৈধ বসতি স্থাপনকারী ও ইসরাইলি বাহিনী সম্মিলিতভাবে ফিলিস্তিনিদের ওপর হামলা জোরদার করার পর গত অক্টোবর থেকে এ পর্যন্ত ১১৫ জনেরও বেশি ফিলিস্তিনি শহীদ হয়েছেন। এছাড়া, আহত হয়েছেন আরো বহু মানুষ।

You Might Also Like