ইকামার মেয়াদ ৫ বছর করবে সৌদি আরব

সৌদি আরব সে দেশে কর্মরত বিদেশি শ্রমিকদের অবস্থানের অনুমতিপত্রের (ইকামা) মেয়াদ এক বছর থেকে বাড়িয়ে পাঁচ বছর করতে যাচ্ছে। বিষয়টি এখন চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। তবে ঠিক কবে থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে, তা এখনো সুনির্দিষ্টভাবে দেশটির পক্ষ থেকে জানানো হয়নি।

আজ মঙ্গলবার গালফ নিউজ–এর এক খবরে এসব কথা বলা হয়েছে।

বর্তমানে দেশটিতে প্রবাসী কর্মীরা নির্দিষ্ট ফি দিয়ে এক বছরের ইকামা পান। বছর শেষ হলে নির্দিষ্ট পরিমাণ ফি দিয়ে তা নবায়ন করতে হয়। এভাবে বছর বছর ইকামা নবায়ন করা বেশির ভাগ শ্রমিকের জন্য কষ্টসাধ্য হয়ে পড়ে। নতুন পদ্ধতি চালু হলে বিদেশি শ্রমিকেরা আর্থিক ও মানসিক চাপ থেকে কিছুটা রেহাই পাবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

বাংলাদেশিসহ প্রবাসীরা দীর্ঘদিন ধরে ইকামা পরিবর্তনের এ সুযোগের জন্য দাবি জানিয়ে আসছিলেন। সৌদি সরকারের এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হলে অনেক বাংলাদেশি সেখানে ভালো কাজের সুযোগ পাবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

খবরে বলা হয়েছে, দেশটির পাসপোর্ট অফিস ইকামার মেয়াদ পাঁচ বছরে উন্নীত করার বিষয়সংক্রান্ত কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে নিয়ে এসেছে। তবে কবে থেকে তা শুরু হবে, তা বলা হয়নি। সৌদি পাসপোর্ট অফিসের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে স্থানীয় দৈনিক আল মদিনার এক খবরে বলা হয়েছে, শিগগিরই নতুন ইকামা চালু হবে।

সৌদি আরবে এখন প্রায় ৯০ লাখ বিদেশি কর্মরত আছেন, এঁদের অধিকাংশই এশিয়ার। বিদেশি শ্রমিকদের সংখ্যা দেশটির মোট জনসংখ্যার এক–তৃতীয়াংশ।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মধ্যে সৌদি আরব বাংলাদেশিদের অন্যতম শ্রমবাজার। একসময় দেশটিতে প্রতিবছর এক লাখ করে কর্মী যেতেন। কিন্তু ২০০৯ সাল থেকে সৌদিতে বাংলাদেশিদের কাজের অনুমতিপত্র পরিবর্তনের সুযোগ বন্ধ থাকায় জনশক্তি রপ্তানিও প্রায় বন্ধ রয়েছে। গত পাঁচ বছরে মাত্র ৪১ হাজার কর্মী গেছেন দেশটিতে।

You Might Also Like