আর্জেন্টিনায় নিজেদের পানি নিয়ে যাচ্ছে পেরু!

১৯৮২ সালের পর আর বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে পারেনি পেরু। তিন যুগ পর বিশ্বকাপে খেলার ভালো একটা সুযোগ এসেছে দেশটির সামনে। বাছাইপর্বে মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ খেলতে তারা যাচ্ছে আর্জেন্টিনায়। কিন্তু আর্জেন্টিনায় গিয়ে সে দেশের কোনো পানি ও কোমল পানীয় পান করবে না পেরুর খেলোয়াড়রা। সেজন্য নিজ দেশ থেকেই পানি ও কোমল পানীয় নিয়ে যাচ্ছে তারা!

কিন্তু কেন এমন উদ্ভুত সিদ্ধান্ত?

একটু পেছনে ফিরে যেতে হয় যে। ১৯৯০ বিশ্বকাপের শেষ ষোলোতে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার ম্যাচ ঘিরে উঠেছিল এক বিতর্ক। ফুটবল ইতিহাসে যেটি ‘হলি ওয়াটার স্ক্যান্ডাল’ নামে পরিচিত। আর্জেন্টিনায় অনুষ্ঠিত সে ম্যাচে বিরতির সময় আর্জেন্টাইন এক স্টাফের কাছে পানির বোতল চেয়েছিলেন ব্রাজিলের ব্রাংকো। বিপত্তি সেখানেই। বোতলের পানিতে কিছু ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে তা তুলে দেওয়া হয় ব্রাংকোর হাতে। ব্রাংকো বিরতির পর মাঠে নামেন টলমলে পায়ে। আর্জেন্টিনার কাছে ১-০ গোলে হেরে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়ে ব্রাজিল। ২০০৪ সালে একটি টেলিভিশন শোতে এসে পানিতে ঘুমের ওষুধ মেশানোর কথা নিশ্চিত করে বিতর্ক উসকে দেন দিয়েগো ম্যারাডোনা।

ওই ঘটনার মতো এবারও কিছু একটা যদি হয়ে যায়, সেই ভয় থেকেই কি নিজেদের দেশ থেকে পানি নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত পেরুর? দেশ থেকে পানি নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে পেরুর টিম ডাক্তার জর্জ আলভা বলেছেন, ‘আমরা নিজেদের পানীয় নিজেরাই নিয়ে যাব। এর আগে অন্য দেশের পানি খেয়ে অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। যদিও এখন হোটেলগুলো অনেক উন্নত। তবে আমরা সতর্কতা অবলম্বন করছি।’

লাতিন আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে দুই দলই গুরুত্বপূর্ণ এক বাঁকের মুখে দাঁড়িয়ে। দুই দলেরই সমান ২৪ পয়েন্ট। তবে গোল ব্যবধানে এগিয়ে থেকে পেরু আছে পয়েন্ট টেবিলের চতুর্থ স্থানে, আর আর্জেন্টিনা পঞ্চম। এই অঞ্চল থেকে সরাসরি ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পাবে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ চার দল। পঞ্চম দলটিকে বিশ্বকাপ মূলপর্বের টিকিট পেতে প্লে-অফ পরীক্ষা দিতে হবে ওশেনিয়া অঞ্চলের শীর্ষ দলের বিপক্ষে। সরাসরি বিশ্বকাপে খেলতে ম্যাচটা তাই দুই দলের জন্যই মহাগুরুত্বপূর্ণ। বুয়েনেস এইরেসে বাংলাদেশ সময় শুক্রবার ভোর সাড়ে ৫টায় শুরু হবে ম্যাচ। এরপর ম্যাচ বাকি থাকবে আর একটি।

তথ্যসূত্র : মেইল অনলাইন, গোল ডটকম

You Might Also Like