আরব আমিরাতে ফ্লাইট পরিচালনা করতে পারবে একাধিক সংস্থা

বাংলাদেশের অনুমোদিত এক বা একাধিক (এয়ারলাইন্স) সংস্থা সংযুক্ত আরব আমিরাতে ফ্লাইট পরিচালনা করতে পারবে। একইভাবে তাদের অনুমোদিত এক বা একাধিক সংস্থা বাংলাদেশে ফ্লাইট পরিচালনা করতে পারবে। এই সুযোগ উভয়দেশের জন্য প্রযোজ্য হবে।

পূর্বের এমন সব সুযোগ বহাল রেখে নতুন কিছু সংজ্ঞা ও শর্তযুক্ত করে দেশটির সঙ্গে পূর্বের চুক্তি সংশোধন করে নতুন চুক্তি করবে বাংলাদেশ।

চুক্তি সম্পাদনের অংশ হিসেবে বাংলাদেশ ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে স্বাক্ষরের জন্য ‘এয়ার সার্ভিসেস এগ্রিমেন্ট বিটুইন দ্যা গভর্নমেন্ট অব দ্যা পিপলস রিপাবলিক অব বাংলাদেশ অ্যান্ড দ্যা গভর্নমেন্ট অব ইউনাইটেড আরব আমিরাতস’ এর খসড়ার অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

সোমবার সকালে প্রধানমন্ত্রী কার্যযালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এটি অনুমোদন দেওয়া হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৈঠক শেষে দুপুরে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

তিনি বলেন, এটি আরব আমিরাতের সঙ্গে বাংলাদেশে দ্বিপাক্ষিক বিমান চলাচল চুক্তি। চুক্তিটি আগেও ছিল। ১৯৮৮ সালে এই চুক্তি সম্পাদিত হয়। এরপর থেকে সময়ে সময়ে উভয়দেশের মধ্যে আলোচনা সাপেক্ষে চুক্তির সংজ্ঞা ও শর্ত নতুন করে সংশোধন করে আবারো চুক্তি করা হয়। ৮৮ সাল থেকে এ পর্যন্ত অনেকবার চুক্তিটি সংশোধন করে নতুন করে চুক্তি করা হয়েছে। ২০০৩, ২০০৭, ২০১১ সালে বাংলাদেশ আরব আমিরাতের সঙ্গে এইভাবে চুক্তি সংশোধন করে।

সচিব বলেন, চুক্তিটি নবায়ন করা হচ্ছে বলা ঠিক হবে না। যতক্ষণ না উভয়দেশ চুক্তিটি বাতিল না করে ততক্ষণ চুক্তিটি থাকবে।

চুক্তিতে কিছু সংজ্ঞা ও কিছু শর্ত ছাড়া বড় কোনো পরিবর্তন নেই বলেও জানান শফিউল আলম।

তিনি বলেন, দ্বিপাক্ষিক চুক্তিটির ভাষা বাংলায় ও আরবি হবে। এ ছাড়া তেমন কোনো পরিবর্তন নেই। চুক্তিতে উভয়দেশের পক্ষে মনোনীত কে থাকবেন তা উল্লেখ থাকবে।

You Might Also Like