আমেরিকার বিরুদ্ধে কঠোর হামলার হুমকি উত্তর কোরিয়ার

দক্ষিণ কোরিয়া ও আমেরিকার চলমান যৌথ নৌ মহড়ার সময় উত্তর কোরিয়ার ভৌগোলিক সীমানা লঙ্ঘন হলে কঠোর হামলার হুমকি দিয়েছে পিয়ংইয়ং। উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএনএ মঙ্গলবার এ হুঁশিয়ারি দিয়েছে।

বার্তা সংস্থাটি এক প্রতিবেদনে বলেছে, সার্বভৌমত্বের সামান্যতম লঙ্ঘন হলেও উত্তর কোরিয়ার সামরিক বাহিনী স্থল, আকাশ, সমুদ্র এবং সমুদ্রের নিচ থেকে দয়ামায়াহীন হামলা চালাবে।

যৌথ মহড়ায় অংশ নিতে মার্কিন বিমানবাহী যুদ্ধজাহাজ ইউএসএস কার্ল ভিনসন মঙ্গলবার দক্ষিণ কোরিয়ায় পৌঁছেছে। এ যুদ্ধাজাহাজে রয়েছে ৫ হাজার ৫০০ সেনা এবং জাহাজটির সঙ্গে রয়েছে ওয়ায়েন ই. মায়ের ডেস্ট্রয়ার। কার্ল ভিসননে থাকা এফ-১৮ যুদ্ধবিমান ইতিমধ্যে জাহাজ থেকে কয়েক দফা উড্ডয়নও করেছে।

রণতরীটির ১ নম্বর স্ট্রাইক গ্রুপের কমান্ডার রিয়ার অ্যাডমিরাল জেমস ডব্লিউ কিলবি দাবি করেছেন, নিয়মিত কাজের অংশ হিসেবেই কার্ল ভিনসনকে মোতায়েন করা হয়েছে। দক্ষিণ কোরিয়ার নৌবাহিনীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে ফোয়াল ইগল নামে এই মহড়ায় অংশ নিচ্ছে রণতরীটি।

পিয়ংইয়ং অবশ্য দাবি করেছেন, এসব জাহাজ ও ডেস্ট্রয়ার মোতায়েনের মাধ্যমে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে হামলার পরিকল্পনা করা হচ্ছে ।

কেসিএনএ বলেছে, ‘যদি তারা উত্তর কোরিয়ার স্বার্বভৌমত্ব ও সম্মানের ওপর বিন্দুমাত্র হস্তক্ষেপের চেষ্টা করে তাহলে সেনাবাহিনী স্থল, আকাল, সাগর ও পানির নিচ দিয়ে কঠোর হামলা চালাবে।’

You Might Also Like