আবার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালালো পাকিস্তান

পাকিস্তান আবার সফল ভাবে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছে। শাহিন-১এ ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানো হয়েছে বলে পাকিস্তানের আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর বা আইএসপিআর’র দেয়া বিবৃতিতে জানানো হয়েছে। পরমাণুবোমাসহ প্রচলিত বোমা বহনে সক্ষম শাহিন-১এ ক্ষুদ্র পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র। ৯০০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম এ ক্ষেপণাস্ত্রে রয়েছে অত্যাধুনিক দিকনির্দেশনা ব্যবস্থা। ফলে এটি সুনির্দিষ্ট লক্ষ্যবস্তুতে নিপুণ ভাবে আঘাত হানতে পারে।

ভূমি থেকে ভূমিতে নিক্ষেপযোগ্য মধ্যম পাল্লার শাহিন-৩ ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালানোর চারদিনের মাথায় শাহিন ১এ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালাল পাকিস্তান। শাহিন-৩ ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পাল্লা হচ্ছে ২,৭৫০ কিলোমিটার। এটি প্রচলিত এবং পরমাণুসহ সব ধরনের ওয়ারহেড বহন করতে পারে।

গত বছর পাকিস্তান শাহিন-১ এবং শাহিন-২ ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা করেছে। শাহিন-১ পরমাণু এবং প্রচলিত বোমা বহন করে ৯০০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারে। আর শাহিন-২’এর পাল্লা ১৫০০ কিলোমিটার।

বর্তমানে পাকিস্তানের ছয় ধরণের পরমাণু বোমাবাহী ক্ষেপণাস্ত্র আছে। এ ছাড়া, আরো দু’টি ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করছে পাকিস্তান। এ সব ক্ষেপণাস্ত্র স্বল্পপাল্লার হবে বলে এর আগে এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

মার্কিন বুলেটিন অব অ্যাটমিক সায়েন্টিস্টের প্রতিবেদনে আরো দাবি করা হয়েছে, প্রতিবেদনের ভাষায়, ভারতীয় আগ্রাসন এবং আধিপত্য ঠেকানোর জন্য পাকিস্তান স্বল্পপাল্লার পরমাণু বোমাবাহী ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করছে। এতে পাকিস্তানের নাসের বা হাতেফ-৯ নামের নিরেট জ্বালানি পরিচালিত ক্ষেপণাস্ত্রের কথা তুলে ধরা হয়েছে। পরমাণু বোমাবাহী এ ক্ষেপণাস্ত্রের পাল্লা মাত্র ৬০ কিলোমিটার এবং এটি দিয়ে ভারতের ভেতরের কোনো কৌশলগত অবস্থানেই হামলা চালানো যাবে না। কিন্তু আগ্রাসন চালানোর চেষ্টা করলে ভারতীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে এটি দিয়ে হামলা চালানো হতে পারে বলে প্রতিবেদনে দাবি করা হয়।

You Might Also Like