আবারো অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক হবেন স্মিথ

স্টিভ স্মিথ আবারো অস্ট্রেলিয়ার নেতৃত্ব ফিরে পাবেন বলে আশাবাদী ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার ডিরেক্টর ও প্রাক্তন অসি অধিনায়ক মার্ক টেলর।

গত মার্চে বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারিতে স্মিথকে এক বছরের জন্য আন্তর্জাতিক ও অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ক্রিকেটে নিষিদ্ধ করে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। আগামী বছর বিশ্বকাপে তিনি অস্ট্রেলিয়া দলে ফিরতে পারবেন। তবে ২০২০ সালের মার্চের আগে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়কত্ব করতে পারবেন না। কারণ, অধিনায়কত্ব করা থেকে যে স্মিথকে দুই বছর নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

২০১৪ সালে স্মিথের হাতে অধিনায়কত্বের ব্লেজার তুলে দিয়েছিলেন মার্ক টেলর। স্মিথ আবারো জাতীয় দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগ পাবেন বলে আশা করছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন এই অধিনায়ক।

রোববার নাইন নেটওয়ার্ককে টেলর বলেছেন, ‘আমি এখনো মনে করি, স্মিথ অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক হতে পারে। আমার মতে, সে অবহেলাজনিত কারণে দোষী। সে দেখেছে, কিছু একটা ঘটতে যাচ্ছে এবং সে প্রতিরোধ করেনি। এটা অবহেলাজনিত ভুল। সে প্রতারক নয়, সে একজন ভালো মানুষ। গত কয়েক মাসে যা ঘটেছে, সেটা আমার মতে বড় ক্ষতি।’
ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া ভবিষ্যতে স্মিথের কাঁধে নেতৃত্ব তুলে দেবে কি না, সেটা সময়ই বলে দেবে। তবে এই সপ্তাহে নেতৃত্বের ইস্যুটা আবার তাদের সামনে আসছে। এই সপ্তাহে ইংল্যান্ড সফরের জন্য অস্ট্রেলিয়ার ওয়ানডে দল ঘোষণা করা হতে পারে।

উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান টিম পেইন বর্তমানে টেস্ট দলের অধিনায়ক। তবে সীমিত ওভারের দলকে কে নেতৃত্ব দেবেন, সেটা এখনো পরিষ্কার নয়। পেইন না পেলে অ্যারন ফিঞ্চ সীমিত ওভারের অধিনায়কত্ব পেতে পারেন। ৩১ বছর বয়সি এই ব্যাটসম্যানের এর আগে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার অভিজ্ঞতা আছে।

স্মিথের বয়স এখন ২৮। এখনো তার সামনে অনেকটা সময় পড়ে আছে। কদিন আগে অস্ট্রেলিয়ার নতুন কোচের দায়িত্ব পাওয়া জাস্টিন ল্যাঙ্গার জানিয়েছেন, নিষিদ্ধ ত্রয়ী স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার ও ক্যামেরন ব্যানক্রফট দলে এলে তিনি স্বাগতই জানাবেন।

টেলর মনে করেন, স্মিথ আবার অধিনায়কত্ব পেলে সেটা তাকে আরো ভালো অধিনায়কে পরিণত করবে। ‘আমি মনে করি, সে যদি কখনো দলে ফিরে আসে এবং অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক হয়, সেটা তাকে আরো ভালো অধিনায়ক বানাবে’- বলেন অস্ট্রেলিয়াকে ৫০ টেস্টে নেতৃত্ব দেওয়া টেলর।

You Might Also Like