আবারও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হচ্ছেন নাসিম!

মোহাম্মদ নাসিম আবারও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হচ্ছেন। বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করলে মোহাম্মদ নাসিম স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে তিনি তখন খুব সফলতার পরিচয় দেন। তাই আওয়ামী লীগ সরকারের তৃতীয় মেয়াদে আবারও তাকে এই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে। সরকারের উচ্চ পর্যায়ের সূত্র রাইজিংবিডিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাওয়া সম্পর্কে মোহাম্মদ নাসিম কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। তিনি রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী কোনো সিদ্ধান্ত নিলে, আমি তা মাথা পেতে নেব।’
মোহাম্মদ নাসিম বর্তমানে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিসেবেও তিনি সফলতার পরিচয় দিয়েছেন।
সরকার গঠনের পর থেকেই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে রয়েছেন প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরাসরি এই মন্ত্রণালয় দেখাশোনা করেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে কোনো পূর্ণ মন্ত্রী নেই, তাই এই মন্ত্রণালয়ে পূর্ণ মন্ত্রী নিয়োগের চিন্তাভাবনা চলছে।
মন্ত্রিসভা থেকে আবদুল লতিফ সিদ্দিকীকে বরখাস্তের পর সরকার মন্ত্রিসভার কলেবর বৃদ্ধির চিন্তাভাবনা শুরু করেছে। তারই অংশ হিসেবে মন্ত্রিসভায় কয়েকজন নতুন মন্ত্রী অন্তর্ভুক্ত হতে পারেন। অন্যদিকে বিতর্কিত কয়েকজন মন্ত্রী বাদও পড়তে পারেন। আবার কয়েকজন মন্ত্রীর দপ্তরও বদল হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
কয়েকটি মন্ত্রণালয়ে পূর্ণ মন্ত্রী নেই। আবার লতিফ সিদ্দিকীকে অপসারিত করায় সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় মন্ত্রীশূন্য রয়েছে। তাই ওই মন্ত্রণালয়গুলোর কাজের গতি ঝিমিয়ে পড়েছে। কাজের গতিশীলতা আনতেই সরকার এই সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে বলে সূত্র জানায়।
চলতি বছরের ৫ জানুয়ারি নির্বাচনের পর আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে তৃতীয় দফায় সরকার গঠন করে। লতিফ সিদ্দিকীকে বরখাস্ত করার পর মন্ত্রিসভায় বর্তমানে ২৯ জন পূর্ণ মন্ত্রী, ১৮ জন প্রতিমন্ত্রী এবং দুজন উপমন্ত্রী রয়েছেন।
প্রধানমন্ত্রী সরাসরি দেখাশোনা করেন মন্ত্রিপরিষদ, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ এবং জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। লতিফ সিদ্দিকীকে অপসারণের পর ডাক ও টেলিযোগাযোগ এবং তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ও প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বে রয়েছে।
সূত্র জানায়, মোহাম্মদ নাসিমকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হলে শেখ ফজলুল করিম সেলিমকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে। আগেও তিনি স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন। দীপু মনিকে এই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে বলেও শোনা যাচ্ছে। তবে এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন।
ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনকে দেওয়া হতে পারে বলে আলোচনা চলছে। আগে তিনি এই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্বও তিনি পালন করেছেন। অবশ্য জুনাইদ আহমেদ পলককেও এই মন্ত্রণালয়ে আনার চিন্তাভাবনা চলছে।
প্রাক্তন পরিবেশমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ ও ব্যারিস্টার শেখ ফজলে ‍নূর তাপস মন্ত্রিসভায় অন্তর্ভুক্ত হতে পারেন বলে সূত্র জানায়। খাদ্যমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক এবং জাহাঙ্গীর কবির নানক আবারও মন্ত্রিসভায় স্থান পেতে পারেন।
শিক্ষা ও খাদ্য মন্ত্রণালয়ে একজন করে প্রতিমন্ত্রী দেওয়া হতে পারে। ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফের দপ্তর বদল হতে পারে বলে সূত্র জানায়।উৎসঃ রাইজিংবিডি

You Might Also Like