আজ থেকে চালু হচ্ছে ফ্রি ইন্টারনেট

আজ থেকে দেশে প্রথমবারের মতো চালু হচ্ছে বিনামূল্যে ইন্টারনেট সেবা। সরকারের বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত নিয়ে তৈরি ওয়েবসাইটের সাথে দেশীয় সংবাদ, ক্রীড়া, কৃষি, ই-কমার্স, অনলাইন মার্কেট প্লেস সাইটও এতে স্থান করে নিচ্ছে। শুরু থেকে ২০টি ওয়েবসাইট ফ্রি দেখা যাবে। পরে আরো ওয়েবসাইটের সাথে যুক্ত হবে।

ফেসবুকের সহপ্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবাগের অনন্য উদ্যোগ ‘ইন্টারনেটডটওআজি প্রকল্পের আওতায় এ সুবিধা পাওয়া যাবে। শুরুতে প্রথম সারির কিছু সংবাদপত্র, জাতীয় তথ্য বাতায়ন, সার্ভিস পোর্টাল, ন্যাশনাল ফর্ম পোর্টালসহ কিছু সরকারি ওয়েবসাইট এ সেবার আওতায় আসবে।

পর্যায়ক্রমে সরকারের সব সেবামূলক সাইট ও গুরুত্বপূর্ণ নাগরিক সেবার কনটেন্ট এতে যুক্ত হবে।

বাংলাদেশে এই প্রকল্পটিতে ইতিমধ্যে যুক্ত হয়েছে মোবাইল অপারেটর রবি আজিয়াটা। রবিবার সকাল ১১টায় ঢাকার একটি পাঁচতারা হোটেলে বিনা মূল্যের ইন্টারনেটের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হবে।

গত ফেব্রুয়ারিতে ঢাকায় অনুষ্ঠিত তথ্যপ্রযুক্তিতে যুক্তিসম্মেলন ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড’-এ বিনা মূল্যের ইন্টারনেট সেবা বাংলাদেশে চালুর বিষয়টি প্রথম আলোচনায় আসে। সম্মেলনে অংশ নেওয়া ফেসবুকের কর্মকর্তা আঁখি দাস বাংলাদেশে সেবাটি চালু করা হবে বলে আশ্বাস দেন।

এরপর প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের প্রকল্প এক্সেস টু ইনফরমেশন (এটুআই), সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ ও ফেসবুক কর্তৃপক্ষ উদ্যোগটি বাস্তবায়নের কাজ শুরু করে।

গত ২১ এপ্রিল প্রকল্পটি চালুর সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও মোবাইল আপারেটরগুলোর রেগুলেশন সংক্রান্ত জটিলতা ও কনটেন্ট প্রোভাইডারের অভাবে সে উদ্যোগ ভেস্তে যায়। এরপর সমস্যা সমাধানে সরাসরি যুক্ত হন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ।

সব সমস্যার সমাধান শেষে আজ থেকে বিনা মূল্যের ইন্টারনেট চালু হতে যাচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে।

বিশ্বের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের দোরগোড়ায় ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দিতে ‘ইন্টারনেটডটওআরজি’ প্রতিষ্ঠা করেন জাকারবার্গ। এটি বৈশ্বিক অংশীদারিমূলক উদ্যোগ।

স্যামসাং, এরিকসন, মিডিয়াটেক, ওপেরা সফটওয়্যার, কোয়ালকম ও নকিয়া রয়েছে এ উদ্যোগের সঙ্গে। বিশ্বের ৪০০ কোটি মানুষকে অনলাইনে আনতে কাজ করছে তারা। ইতিমধ্যে তানজানিয়া, কেনিয়া, কলাম্বিয়া, ঘানা, জাম্বিয়া ও ভারতে প্রকল্পটি শুরু হয়েছে।

You Might Also Like