‘আগামীতে স্বাধীনতাবিরোধীরা যাতে ক্ষমতায় আসতে না পারে সেজন্য সতর্ক থাকবেন‘

ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জনসভায় ভাষণ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
ভাষণে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ভাষণের প্রেক্ষাপট তুলে ধরেন। আরও বলেন, যারা দেশের স্বাধীনতা চায়নি, তারাই আন্দোলনের নামে মানুষ পুড়িয়ে মেরেছে। আগামীতে স্বাধীনতাবিরোধীরা যাতে ক্ষমতায় আসতে না পারে সেজন্য দেশবাসীকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন শেখ হাসিনা।
বুধবার বিকেলে ভাষণের শুরুতেই শেখ হাসিনা বলেন, ‘এখন যেটি শিশুপার্ক সেখানে মঞ্চ ছিল। সেখান থেকে জাতির পিতা ঘোষণা দেন – এবারের সংগ্রাম, স্বাধীনতার সংগ্রাম …। সেই ডোকে সাড়া দিয়েছিল সারাদেশের মানুষ।’
তিনি আরও বলেন, ‘একাত্তর সালের যুদ্ধ ছিল জনযুদ্ধ। দেশের সব শ্রেণিপেশার মানুষ সে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল। আর একশ্রেণির মানুষ হানাদার বাহিনীর সঙ্গে হাত মিলিয়ে গ্রামের পর গ্রাম জ্বালিয়ে দিয়েছে, মা-বোনকে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর হাতে তুলে দিয়েছিল।’
প্রধানমন্ত্রী জানান, ‘আইয়ুব খান তার ডায়েরিতে লিখেছিলেন, যখন কারাগার থেকে বঙ্গবন্ধুকে বিচারের জন্য নিয়ে আসা হতো তখন তিনি এসে বসার সময় বলতেন ‘জয় বাংলাদেশ’। তোমরা আমার বিচার করে কী করবে, বাংলাদেশ স্বাধীন হবে। যদি আমাকে হত্যা করো, আমার লাশটা বাংলাদেশে পৌঁছে দিয়ে এসো।’
বেলা আড়াইটার দিকে পবিত্র কোরআন, গীতা, ত্রিপিটক ও বাইবেল পাঠের মধ্যদিয়ে জনসভার কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়।
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সূচনা বক্তব্য দেন।
বিকেল ৩টার দিকে জনসভায় সভাপতির আসন গ্রহণ করেন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
সূত্র: সময় টিভি

You Might Also Like