অলিখিত কাহিনী

ফারজানা ফারজু

ফুটপাথে যেতে চোখে পরে
দেখি
অসংখ্য ফাটল!
আঁকাবাঁকা ফাটল!
সোজা ফাটল!
সরু ফাটল! চওড়া ফাটল!
ফাটলের ফাঁকে ফাঁকে অগুনিত নুড়ী পাথার।
রঙ তাদের নানা রকমের।
উজ্জ্বল,
মলিন,
কালো,
ধুসর।
স্বচছ,
সাদা
আরো কতো কি রঙের!
মনে আসে…
ভাবি…
এই ফাটলের ভাজে ভাজে লুকিয়ে আছে
কতো ইতিহাস।
লক্ষ জনের পায়ের আঘাতে ক্ষয়ে গিয়েছে
এই নূড়ী পাহর।
চলার পথে প্রতিটি পায়ের আঘাতে
চলমান হয়েছে তারা।
এক এক পায়ের আঘাতে বদলে গিয়েছে তাদের স্থান!
কোথা থেকে কোথায় গড়িয়ে
আজ তারা এক এক জন এক এক ফাটলের বাসিন্দা।
আশ্রয় পেয়েছে কোনো এক ফুটপাথের ফাটলে।
কথা বলছে নূড়ী পাথর একে অপরের সাথে।
বিনিময় করছে হাজারো জানা কাহিনী, অজানা কাহিনী।
প্রতিটা পাথরের জানা আছে হাজারো অজানা খন্ড কাহিনী ।
সে কাহিনী
ভালোবাসার কাহিনী,
সে কাহিনী প্রেমের কাহিনী,
বিরহের,
দুঃখের,
আনন্দের,
হসি,
কান্নার,
বেদনার কাহিনী।
অজস্র কাহিনী লুকিয়ে আছে এই ফুটপাথে
লুকিয়ে থাকা নূড়ী পাথরের।
তেমনি জানা আছে সাগরের বালুকা বেলার।
জানা আছে কোনো এক প্রাচীন গাছের।
জানা আছে তেপান্তরের মাঠের।
অথবা দিগন্ত বিস্তারীত মরুভুমীর।
এ কাহিনী অলিখীত কাহিনী।
প্রকৃতির মাঝে খোদাই করা কাহিনী।
নিউ ইয়র্ক ৯ই জুলাই ২০১৮

You Might Also Like