অরল্যান্ডো হামলায় আইএসের সম্পৃক্ততা পায়নি যুক্তরাষ্ট্র

অরল্যান্ডো হামলায় কথিত ইসলামিক স্টেট দায় স্বীকার করলেও মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেছেন, এই হামলার সঙ্গে ইসলামিক স্টেট জড়িত, এমন কোন তথ্যপ্রমাণ মেলেনি। বরং এই হামলা দেশের ভেতরেই গড়ে ওঠা চরমপন্থি আদর্শবাদীদের কাজ।
রোববার রাতে একটি সমকামী নৈশ ক্লাবে ওই হামলায় ৪৯জন নিহত হয়, যাকে একটি সন্ত্রাসী হামলা হিসাবেই বিবেচনা করছেন মার্কিন তদন্তকারীরা। হামলাকারী আফগান বংশোদ্ভূত ওমর মতিন পুলিশের গুলিতে নিহত হয়।
গোয়েন্দারা বলছেন, হামলার আগে পুলিশে ফোন করে আইএসের প্রতি আনুগত্যের কথা জানিয়েছিলেন ওমর মতিন।
হামলার পর আইএসের নামে একটি ইন্টারনেট বার্তায় বলা হয়, ফ্লোরিডা স্টেটে সমকামী নৈশ ক্লাবে যে শতাধিক মানুষ নিহত বা আহত হয়েছে, তা আইএসের একজন যোদ্ধা চালিয়েছে।
তবে সেই দাবি নাকচ করে দিলেন দেশটির প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।
তিনি বলছেন, ”ওমর মতিন যে আইএসের নির্দেশে এই হামলা চালিয়েছিলে, এমন কোন তথ্যপ্রমাণ পাওয়া যায়নি। যদিও শেষ মুহূর্তে সে আইএসের সাথে সংশ্লিষ্টতার কথা ঘোষণা করেছিল, কিন্তু এমন কোন প্রমাণ নেই যে, সে তাদের নির্দেশেই হামলা চালিয়েছে।”
মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, ”যেভাবে ইসলামের নামে অপপ্রচার হচ্ছে, সেই অপপ্রচার যেভাবে ইন্টারনেটের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ছে, আর দুর্বল মনের মানুষদের সেগুলো যেভাবে এ ধরনের হামলা করার জন্য প্ররোচিত করছে, সেই পুরো বিষয়টি খুবই মর্মান্তিক।”
তিনি বলছেন, ”এ ধরনের হামলা প্রতিহত করার জন্য এখন গুরুত্বপূর্ণ কাজ হবে উগ্রপন্থী আদর্শবাদ ও তার প্রচারণা ঠেকানো।”
তবে এফবিআই প্রধান জেমস কোমে বলেছেন, ”ওমর মতিন ইন্টারনেটের মাধ্যমে উগ্রপন্থায় অনুপ্রাণিত হন। তবে যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে থেকে এই হামলার বিষয়ে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে, এমন কোন প্রমাণ আমরা পাইনি এবং নির্দিষ্ট কোন জঙ্গি নেটওয়ার্কের সাথে তিনি জড়িত ছিলেন, এমন কোন ইঙ্গিত এখনো পাওয়া যায়নি।”
মি. কোমে বলেন, ”ওমর মতিন কাদের অনুসারী ছিলেন, সেটাও স্পষ্ট নয়। তবে বিদেশী কোন জঙ্গি গোষ্ঠীর দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে থাকতে পারেন।” -বিবিসি

You Might Also Like