Uncategorized

অমিত শাহর ‘সুর নরম’

নাগরিকত্ব আইন কার্যকর হওয়ার পর ভারতের আসাম ও পশ্চিমবঙ্গসহ বিভিন্ন রাজ্যে আন্দোলন জোর হয়েছে। ব্যাপক চাপের মুখে সুর নরম করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এমন পরিস্থিতিতে আইনে পরিবর্তন আনার কথাও বলেছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সইয়ের পর সেদিন রাত থেকেই কার্যকর হয়েছে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন। আর এরপর রীতিমতো অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে আসাম ও পশ্চিমবঙ্গ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসামে কারফিউ জারি করা হয়। কারফিউ জারি করা হয় উত্তর-পূর্ব ভারতের আরেক রাজ্য মেঘালয়েও। তারপরও বিক্ষোভ কমার নাম নেই। উল্টো বিক্ষোভের মধ্যেই আসামের পাঁচজনের মৃত্যু হয়।

এদিকে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে পুরো দেশের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বাইরে চলে যাওয়ায়, এর দায় কংগ্রেসের ওপর চাপিয়েছেন অমিত শাহ। তার দাবি, মানুষকে ভুল তথ্য দিয়ে উস্কানি দিচ্ছে কংগ্রেস। কংগ্রেসই দেশে আশান্তি ছড়াচ্ছে বলেও দাবি করেন তিনি।

অন্যদিকে ব্যাপক বিক্ষোভের মুখে এখন এই আইনে পরিবর্তন আনার কথা বলেছেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। ঝাড়খণ্ডে এক নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে অমিত বলেন, তিনি মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী ও সেখানের মন্ত্রীদের সঙ্গে শুক্রবার কথা বলেছেন। তিনি বলেন, তারা (মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী ও প্রতিনিধিদল) আমাকে কিছু পরিবর্তন (আইনে) আনতে অনুরোধ করেছেন।

ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি সাংমাজিকে (কনরাড সাংমা) বলেছি আমার সঙ্গে দেখা করতে। এরপরই অমিত শাহ জানান, ক্রিস্টমাসের পর সম্ভবত মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী কনরাড সাংমার সঙ্গে তিনি বৈঠকে বসবেন।

সেখানে একটি ‘সংগঠিত আলোচনা’ হবে বলে দাবি করেন অমিত শাহ। পাশাপাশি তিনি বলেন, কারোর ভয় পাওয়ার কিছু নেই।