অবরুদ্ধ মেয়র বললেন, ‘মাস্তানি চলবে না’

রাজধানীর তেজগাঁওতে ট্রাকস্ট্যান্ড উচ্ছেদে আজ রোববার দুপুর একটার দিকে অভিযান শুরু হয়। এ সময় মারমুখী হয়ে ওঠেন ট্রাকচালকসহ সংশ্লিষ্ট শ্রমিকেরা। বিষয়টি নিয়ে কথা বলার জন্য বাংলাদেশ ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান ড্রাইভার্স ইউনিয়নের কার্যালয়ে গেলে ঢাকা উত্তরের মেয়র আনিসুল হককে অবরুদ্ধ করে রাখেন তাঁরা।
পরিস্থিতি সম্পর্কে অবরুদ্ধ মেয়র বেসরকারি টেলিভিশনের সাংবাদিকদের বলেন, ‘মাস্তানি চলবে না।’ প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, দুপুরে সিটি করপোরেশনের লোকজন ট্রাকস্ট্যান্ড উচ্ছেদের অভিযান শুরু করেন। এ সময় সেখানে ছিলেন রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক ও ঢাকা উত্তরের মেয়র আনিসুল হক। উচ্ছেদ অভিযান শুরুর কিছুক্ষণ পরই চালক ও স্থানীয় লোকজন উচ্ছেদকারীদের ওপর ইট পাটকেল ছুঁড়তে শুরু করেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে ও মন্ত্রী-মেয়রকে রক্ষা করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী গুলি চালায়। এতে এক ট্রাকচালক আহত হন। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, আহত ট্রাক চালকের নাম জসিমউদ্দিন। তাঁকে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ভাঙচুরের শিকার হয়েছে চ্যানেল আইয়ের গাড়ি। ওই গাড়ির চালক আজহার আহত হন। এ ছাড়া বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরের ফটোসাংবাদিক তানভীর আহমেদের মাথায় ইটের আঘাত লেগেছে। তাঁর ক্যামেরা ভাঙচুর করা হয়েছে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) সেন্টু চন্দ্র দাস গণমাধ্যমকে বলেন, জসিমউদ্দিনের শরীরের বিভিন্ন অংশে ছররা গুলি লেগেছে। বিষয়টি নিয়ে কথা বলার জন্য মেয়র আনিসুল হক বাংলাদেশ ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান ড্রাইভার্স ইউনিয়নের কার্যালয়ে যান। তখন তাঁকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়।
সেখানে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘যারা মাস্তানি করছেন, তাদের বলছি এসব মাস্তানি চলবে না। আমার পেছনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর, মানুষের সমর্থন আছে। ঢাকা শহরে এসব অবৈধ কাজ হবে না।’ বেলা তিনটায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত শ্রমিক-পুলিশের পাল্টাপাল্টি ধাওয়া চলছে। বাংলাদেশ ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান ড্রাইভার্স ইউনিয়নের কার্যালয়ের বাইরে বিক্ষোভ চলছে। বাইরে মেয়রের প্রটোকলের গাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে। টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করছেন ট্রাক চালক শ্রমিকেরা। কিছু শ্রমিক সাত রাস্তা থেকে তেজগাঁও ঢোকার মুখে রাস্তা বন্ধ করে দাঁড়িয়ে আছেন।

You Might Also Like