অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে নেপালের ‘চমক’

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে নেপালের খেলাটি সম্প্রচার তালিকাতেও ছিল না। কিন্তু ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এই ম্যাচেই ঘটে গেল বিরাট অঘটন! টেস্ট খেলুড়ে নিউজিল্যান্ডকে ৩২ রানে হারিয়ে প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় দিনেই সবাইকে চমকে দিয়েছে ক্রিকেটের উদীয়মান দেশ নেপাল।

টসে জিতে ফিল্ডিং নেওয়া নিউজিল্যান্ডের লক্ষ্য হয়তো ছিল যত তাড়াতাড়ি সম্ভব নেপালকে অলআউট করে ম্যাচটা দ্রুত জিতে নেওয়া। কিন্তু সে আশা প্রথমেই ধাক্কা খায় নেপালের ব্যাটিংয়ে। নেপালের ব্যাটসম্যানরা প্রত্যয়ী ব্যাটিংয়ে ছুড়ে দেন ২৩৯ রানের চ্যালেঞ্জ। সেই চ্যালেঞ্জ উতরানোর পথে দ্বিপেন্দ্র সিং আরি আর প্রেম তামাং নামের দুই বোলারের বোলিং তোপেই শেষ নিউজিল্যান্ড। এই দুই নেপালি বোলার নিজেদের মধ্যে ৫টি উইকেট ভাগাভাগি করে নিয়ে নিউজিল্যান্ডকে থামিয়ে দেন ২০৬ রানেই। ৩২ রানের এই দারুণ জয়ে নিজেদের গ্রুপ থেকে কোয়ার্টার ফাইনালে যাওয়ার স্বপ্নটা এখন নেপাল দেখতেই পারে।

ব্যাটসম্যানদের সম্মিলিত পারফরম্যান্সেই ৭ উইকেটে ২৩৮ তুলেছিল নেপাল। দলের কেউ ফিফটি পাননি। অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক রাজু রিজালের ব্যাট থেকে আসে ইনিংস সর্বোচ্চ ৪৮। এ ছাড়া সন্দ্বীপ সুনার ও আরিফ শেখ—দুজনই করেন ৩৯। আটে নেমে কুশল ভুর্তেল ২৩ বলে করেন ৩৫।

নিউজিল্যান্ডের সেরা বোলার ছিলেন নাথান স্মিথ। তিনি ৫৮ রানে নিয়েছেন ৩ উইকেট।

২৩৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড। গ্লেন ফিলিপসের ব্যাট থেকে আসে সর্বোচ্চ ৫২ রান। পাশাপাশি জশ ফিনি করেন ৩৭, ডেল ফিলিপস ৪১ আর নাথান স্মিথ ২৪। এর বাইরে বলার মতো কোনো স্কোর নেই নিউজিল্যান্ড দলে।

নেপালের সেরা বোলার ছিলেন দ্বিপেন্দ্র সিং আরি। ২৪ রানে ৩ উইকেট নিয়ে কিউই লেজ ছেঁটে দিয়েছেন এই পেসার। প্রেম তামাং ৩৮ রানে নিয়েছেন ২ উইকেট। তবে এই দুই উইকেটই আসল ধাক্কা দিয়েছে কিউই যুবাদের। নেপাল পেয়েছে স্মরণীয় এক জয়।

একই দিন আয়ারল্যান্ডকে ৭৯ রানে হারিয়েছে ভারত। আফগানিস্তানকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে পাকিস্তান। কানাডাকে ১৯৬ রানে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা। যুব বিশ্বকাপে বৃহস্পতিবার যেন ছিল দক্ষিণ এশিয়ার দিন!

You Might Also Like