অনুপ চেটিয়ার বদলে নূর হোসেন!

বাংলাদেশ-ভারত পররাষ্ট্রসচিব পর্যায়ের বৈঠকে সীমান্ত হত্যা বন্ধে সমঝোতায় পৌঁছেছে দুই দেশ৷ মানবপাচার রোধে সই হয়েছে সমঝোতা স্মারক৷ ওদিকে ভারত হত্যা মামলার আসামি নূর হোসেনকে ফেরত দিতে সম্মত হয়েছে উলফা নেতা অনুপ চেটিয়ার বদলে৷

ঢাকায় বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পররাষ্ট্রসচিব পর্যায়ের দুই দিনের বৈঠকে বাংলাদেশের নেতৃত্ব দেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মোজাম্মেল হক খান৷ অন্যদিকে ভারতের পক্ষে নেতৃত্ব দেন দেশটির পররাষ্ট্র সচিব অনীল গোস্বামী৷ দু’দিনের বৈঠক শেষে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রসচিব জানান, সীমান্ত হত্যা বন্ধে বাংলাদেশ এবং ভারত একটি সমঝোতায় পৌঁছেছে৷

তিনি বলেন, সীমান্তে কোনো অপরাধী ধরা পড়লে তাকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেয়া হবে৷ তবে আত্মরক্ষার অধিকার সবার আছে৷ তাই এক্ষেত্রে অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা নিতে হবে৷

তার কথায়, এছাড়াও মানবপাচার রোধে একটি সমঝোতা স্মারকে সই করেছে দেশ দুটি৷ বাংলাদেশের মন্ত্রিসভা এরই মধ্যে এই সমঝোতা স্মারক অনুমোদন করেছে৷ ভারতের মন্ত্রিসভাতেও তা অনুমোদ পাবে বলে জানান পররাষ্ট্রসচিব৷ তিনি জানান, ভারতের লোকসভার আগামী অধিবেশনেই সীমান্ত চুক্তি অনুমোদনের আশ্বাস পওয়া গেছে৷

নূর হোসেন-অনুপ চেটিয়া
পররাষ্ট্রসচিব ড. মোজ্জামেল হক খান সাংবাদিকদের জানান, অনুপ চেটিয়াকে বাংলাদেশ ফিরিয়ে দিতে তৈরি৷ ইতোপূর্বে চেটিয়া বাংলাদেশে রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছিলেন৷ তবে এখন তিনি ভারতে ফিরে যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন৷ আর বাংলাদেশ তাঁকে ফিরিয়ে দেয়ার ব্যাপারে সদিচ্ছার কথা জানিয়েছে ভারতকে৷

অন্যদিকে কলকাতার কারাগারে থাকা নারায়ণগঞ্জের সাতজনকে হত্যা মামলার আসামি নূর হোসেন সম্পর্কে আলোচনা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন মোজাম্মেল হক খান৷ তিনি জানান, যথাযথ আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ করে নূর হোসেনকে বাংলাদেশের কাছে ফিরিয়ে দেয়ার কথা জানিয়েছে ভারত৷ তবে শুধু নূর হোসেন নয়, ভারতে পালিয়ে থাকা অন্য আসামিদেরও বাংলাদেশের কাছে ফিরিয়ে দেয়ার কথা জানিয়েছে ভারত৷

তিনি বলেন, ভারতের পররাষ্ট্রসচিব বৈঠকে জানিয়েছেন যে, বঙ্গবন্ধুর খুনিদের কেউ ভারতে আছে কিনা – তা নিশ্চিত নয়৷ বঙ্গবন্ধুর খুনিদের মধ্যে কেউ যদি ভারতে থাকেন, তাদের বাংলাদেশের কাছে ফেরত দেয়া হবে৷ সূত্র : ডি ডব্লিউ

You Might Also Like