অক্সিজেনের বদলে লাফিং গ্যাস, মরেই গেল শিশুটি

শ্বাস-প্রশ্বাস স্বাভাবিক রাখতে দেওয়ার কথা ছিল অক্সিজেন। দেওয়া হলো লাফিং গ্যাস (হাসানোর গ্যাস)। হাসপাতালের চিকিৎসকদের এই মারাত্মক ভুলে মারাই গেল অস্ট্রেলিয়ার এক শিশু। মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে আরেক নবজাতক।

মর্মান্তিক দুর্ঘটনাটি ঘটেছে অস্ট্রেলিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় উপকূলের অঙ্গরাজ্য নিউ সাউথ ওয়েলসের রাজধানী সিডনির ব্যাকসটাউন-লিডকম্বে হসপিটালে। মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) এ খবর দিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।

সংবাদমাধ্যম জানায়, চিকিৎসাধীন ওই শিশুর অাকস্মিক মৃত্যুর পর ঘটনাটি বুঝতে পারেন হাসপাতালটিরই এক চিকিৎসক। এ ঘটনায় পুরো অস্ট্রেলিয়ায় সমালোচনার ঝড় বইছে।

নিউ সাউথ ওয়েলসের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জিলিয়ান স্কিনার এ ঘটনায় গভীর দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, দুঃখজনক এই ভুল খতিয়ে দেখতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এই ঘটনায় শোকাহত পরিবারের জন্য যা করার দরকার তা-ই করবে রাজ্যের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

সন্তানের মৃত্যুর খবর জানতে পেরে কেবল কেঁদে কেঁদে উঠছিলেন শিশুটির মা সোনিয়া ঘানেম। তিনি চিৎকার করে বলছিলেন, ‘আমি বলছি, তাকে শুধু একবার দেখতে চাই। আমার বুকের ধন, জাগো না বাবা। আমি তাকে বলতাম, বাবা ওঠো। তারা তোমাকে কী করেছে বলো?’

সংবাদমাধ্যম বলছে, অক্সিজেনের লাইনটি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমোদিতই ছিল। কিন্তু এখন কেউ ঠিক বুঝে উঠতে পারছে না কীভাবে অক্সিজেনের লাইনে লাফিং গ্যাস ঢুকে গেলো।

সেজন্য রাজ্যের সব স্বাস্থ্য সংক্রান্ত লাইন নিরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছেন মন্ত্রী। যদিও তার পদত্যাগ দাবি করেছে সরকারবিরোধীরা।

You Might Also Like