অংকের জন্য ভেঙে গেল বিয়ে!

এমন অনেকেই আছেন যারা অঙ্কে বেশ দুর্বল। এ জন্য শিক্ষাজীবনে নানা দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। শিক্ষকদের কানমলাও খেতে হয়েছে অনেককে। শুনতে হয়েছে কতশত অপবাদ।

 

তবে অঙ্ক না পারায় বিয়ে ভেঙেছে- এমন কথা এবারই প্রথম শোনা গেল। ভারতের উত্তর প্রদেশে এমন একটি ঘটনাই ঘটেছে। শুক্রবার বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, ভারতের উত্তর প্রদেশের রসুলাবাদ গ্রামে একটি বিয়ের আসরে হবু বর সহজ অঙ্কের উত্তর দিতে না পারায় হবু পাত্রী বিয়ে ভেঙে দিয়েছেন।

 

পুলিশ জানায়, রসুলপুর গ্রামের মোহর সিংয়ের মেয়ে লাভলীর সঙ্গে কানপুরের দেহাত জেলার বাসিন্দা রাম বরণের বিয়ে ঠিক হয়। কিন্তু পাত্রী লাভলী জানতে পারেন যে রাম বরণ ‘নিরক্ষর’। বিয়ের আসরে রাম বরণের কাছে ১৫+৬-এ কত হয়, তা পাত্রীর পক্ষ থেকে জানতে চাওয়া হয়। রাম বরণ সঠিক উত্তর না দিতে পেরে বলেন ১৭। আর এতেই কপাল পোড়ে তার।

 

সঠিক উত্তর না বলতে পারায় ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন বিয়ের কনে লাভলী। তিনি ওই আসরে বিয়েটাই ভেঙে দেন। পরিবার ও গ্রামের লোকজন শত বোঝালেও লাভলী আর রাম বরণকে বিয়ে করতে রাজি হননি।

 

কনের বাবা মোহর সিং বলেন, ‘বরের বাড়ির লোকেরা বরের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে আমাদের মিথ্যা বলেছিল। প্রথম শ্রেণির একটি বাচ্চাও এ প্রশ্নের উত্তর জানে।’

 

এর আগে ফেব্রুয়ারি মাসে ভারতের উত্তর প্রদেশের মোরাদাবাদে মৃগীরোগী বর বিয়ের আসরে অসুস্থ হয়ে পড়েন। সেই বিয়ের আসরে পাত্রপক্ষের এক অতিথিকে বিয়ে করেন কনে।

You Might Also Like